|

বিশ্ববিদ্যালয় দিবসে জবি শিক্ষার্থীর স্মৃতিচারণ

Published: Tue, 20 Oct 2020 | Updated: Tue, 20 Oct 2020

এইতো গতবছর (২০ অক্টোবর) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে পত্রিকায় অনেক জবিয়ান ছাত্রছাত্রীর লেখা পড়েছিলাম। এবার ১৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে একজন জবিয়ান ছাত্রী হিসেবে নিজেই লেখার সুযোগ পেয়েছি যা আমার পরম পাওয়া।

প্রথমে পাঠশালা, এরপর স্কুল, কলেজ এবং অবশেষে একটি পূর্ণাঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে ২০০৫ সালে আত্নপ্রকাশ ঘটেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের। এই ১৫ বছরেই অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের তুলনায় অনেক এগিয়ে গেছে এবং দেশের প্রথম সারির বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে নিজের নাম লিখিয়েছে প্রাণের জবি, যা এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষকদের অনেক বড় একটি অর্জন।

মনে পড়ে যাচ্ছে সেই দিনটির কথা, যেদিন দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আসা হাজার হাজার ছাত্রছাত্রীর মাঝে আমিও বুকভরা আশা নিয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিয়েছিলাম এবং পরম সৌভাগ্যক্রমে ও আল্লাহর অসীম রহমতে আজ আমি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন গর্বিত ছাত্রী।

পহেলা জানুয়ারি, সেদিন ছিল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী হিসেবে ক্যাম্পাসে প্রথম দিন, সে যেন অন্যরকম একটা অনুভূতি। পুরো ক্যাম্পাস জুড়েই অনেকগুলো অপরিচিত মুখের মেলা, ক্লাসে উপস্থিত হয়েই সহপাঠীদের সাথে এক এক করে পরিচিত হওয়া, ডিপার্টমেন্টের বড় ভাইবোন দের সাথে পরিচিত হওয়া, সবটাই অনেক আনন্দদায়ক ছিল। এরপর শিক্ষকদের বক্তব্য শুনে স্বপ্ন পূরনের সাহস যেন আরও বেড়ে গেল। পরবর্তী দিন গুলোতে আস্তে আস্তে মনে হতে থাকল এ যেন এক পরিবার যেখানে আন্তরিকতার সম্পর্ক শুধু ডিপার্টমেন্ট নয়, সেই ছোট্ট ক্যাম্পাসের সবখানেই যেন গড়ে উঠল। বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস এ চড়ার স্বপ্ন পূরণ হলো।

দূর্ভাগ্যবশত বিশ্ববিদ্যালয় জীবন বেশিদিন না যেতেই পৃথিবীজুড়ে করনা মহামারির জন্য বিশ্ববিদ্যালয়সহ সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হলো। তবুও সেই ভালোবাসার, আন্তরিকতার সম্পর্ক যেন বেড়েই চলেছে জবিয়ানদের মাঝে।

প্রতিবারের তুলনায় এবারের 'বিশ্ববিদ্যালয় দিবস' উদযাপনের আনন্দ একটু বেশি কেননা এবার আর জবি সম্পূর্ণ অনাবাসিক বিশ্ববিদ্যালয় থাকল না, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সাথে সাথে শুভ উদ্বোধন হতে চলেছে জবির একমাত্র ছাত্রীহল 'বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিব হল' এর। যদিও করনা মহামারির জন্য জাঁকজমকপূর্ণ উদযাপন সম্ভব হচ্ছে না তবুও ভার্চুয়ালি দিবসটি উদযাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

রাজধানীর পুরান ঢাকাতে অবস্থিত এই 'জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়' ১৮৫৮ সালে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে যাত্রা শুরু করেছিল এবং বর্তমানে এটি একটি পূর্ণাঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে ছয়টি অনুষদের অধীনে ৩৬টি বিভাগ ও ২টি ইন্সটিটিউট নিয়ে এগিয়ে চলেছে, এই ২০ অক্টোবর পা রাখছে ১৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে।

সবশেষে এই দোয়া করি যে, আরও দীর্ঘ হোক প্রাণের জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের যাত্রা, অটুট থাকুক এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষকদের মাঝের ভালোবাসার বন্ধন। সকলকে জানাই জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের অনেক অনেক শুভেচ্ছা।

সিদরাতুল মুনতাহা 
সমাজবিজ্ঞান বিভাগ
১৫তম আবর্তন
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়