|

নিয়মিত করলা খেলে, রোগবালাই থাকে দূরে

Published: Mon, 25 Oct 2021 | Updated: Mon, 25 Oct 2021

অভিযাত্রা ডেস্ক: গরম ভাত দিয়ে করলা ভাজি অনেকেরই অতি পছন্দের খাবার। অনেকেই আবার তেতো স্বাদের জন্য মুখেও নিতে চান না করলা। তবে বেশির ভাগ মানুষই এর গুণাগুণ সম্পর্কে জানেন না। 
 

নিয়মিত করলা খেলে রোগবালাই থাকে ১০০ হাত দূরে। প্রতি ১০০ গ্রাম করলায় আছে ২৮ কিলোক্যালরি, ৯২ দশমিক ২ গ্রাম জলীয় অংশ, ৪ দশমিক ৩ গ্রাম শর্করা, ২ দশমিক ৫ গ্রাম আমিষ, ১৪ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম, ১ দশমিক ৮ মিলিগ্রাম লোহা ও ৬৮ মিলিগ্রাম ভিটামিন সি।

এটি বর্ষজীবী আরোহী শ্রেণির বিরুৎ। এর কাণ্ড শাখাযুক্ত এবং আকর্ষী আছে। পাতা খণ্ডাকার। স্ত্রী এবং পুরুষ ফুল একই গাছে থাকে। হলুদ রঙের ফুল। ফল বড়, ৮ থেকে ২০ সেন্টিমিটার লম্বা। কাঁচা ফল সবজি হিসেবে খাওয়া হয়। চর্মরোগে বিভিন্ন অংশ কাজে লাগে। বীজ থেকে চারা হয়। জন্মস্থান দক্ষিণ এশিয়া ও বিভিন্ন উষ্ণমণ্ডলীয় অঞ্চল।
করলা খেলে শরীরে তার নানা প্রভাব পড়ে- 

১. যারা রোজ করলা খান, তাদের ডায়াবেটিসের আশঙ্কা কমে। রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকে।
 
২.  নিয়মিত করলা খেলে পেটের অনেক সমস্যা কমে যায়। অম্বল বা গ্যাসের সমস্যা থাকলে তা কমিয়ে দেয় এটি। পেট পরিষ্কার করে এবং খিদেও বাড়িয়ে দেয়।

৩. কৃমির সমস্যায় ভুগছেন, নিয়মিত করলা খেলে কমে যেতে পারে এই সমস্যা।

৪. করলা রোগ প্রতিরোধ শক্তি বাড়িয়। ফলে নিয়মিত এটি খেলে জ্বর, অন্যান্য সংক্রমণের আশঙ্কা কমে।

৫. গবেষণা বলছে নিয়মিত করলা খেলে বেশ কিছু যৌনরোগের সমস্যাও কমে।

৬. রক্তের অতিরিক্ত চিনির মাত্রা কমিয়ে আনতে সাহায্য করে করলা।

৭. উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি কমায় করলা। নিয়মিত করলা খেলে রক্তে এলডিএল বা খারাপ কোলেস্টরলের মাত্রা কমে।

৮. নিয়মিত করলা খেলে ক্যানসারের ঝুঁকি কমে।

৯. করলায় থাকা অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট উপাদান ও ভিটামিন সি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। অ্যালার্জি এবং সংক্রমণের প্রকোপ কমাতেও সাহায্য করে এটি।

১০. করলায় থাকা অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট উপাদান রক্তে মিশে থাকা দূষিত উপাদান বের করতে সাহায্য করে। এতে অসময়ে ত্বক বুড়িয়ে যাওয়ার আশঙ্কা কমে। পাশাপাশি করলায় থাকা ভিটামিন এ, সি এবং জিঙ্ক বলিরেখা কমিয়ে ত্বক টানটান রাখে।

১১. মেদ কমাতে প্রতিদিন পান করতে পারেন করলার রস। এতে থাকা ডায়াটারি ফাইবার অনেকক্ষণ পর্যন্ত ক্ষুধা লাগতে দেয় না। ফলে স্বাভাবিকভাবেই ওজন কমতে শুরু করে। এছাড়া বেশকিছু গবেষণায় দেখা গেছে, করলায় থাকা নানাবিধ খনিজ এবং অন্যান্য উপকারী উপাদান শরীরে জমে থাকা চর্বিকে ঝরিয়ে দিতে বিশেষ ভূমিকা রাখে।
লিভার ভালো রাখে করলা। বদহজম এবং অ্যাসিডিটির প্রকোপ কমায় এটি।
ও/এসএ/