|

জবি ক্যাম্পাসে উদীচী‘র বর্ষাবরণ অনুষ্ঠিত

Published: Wed, 15 Jun 2022 | Updated: Wed, 15 Jun 2022

মেহেরাবুল ইসলাম সৌদিপ, জবি: উৎসবমুখর পরিবেশে রোমাঞ্চকর ঋতু বর্ষাকে বরণ করে নিলো উদীচী জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সংসদ। বুধবার (১৫ জুন) বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাস্কর্য চত্বরে ‘এসো করো স্নান নবধারা জলে’ স্লোগানকে সামনে রেখে বর্ষাকল্প ১৪২৯ অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন একুশে পদকপ্রাপ্ত খ্যাতিমান অভিনেতা ও নাট্যজন মাসুম আজিজ।

তিনি বলেন, যে গান মেহনতি মানুষের কথা বলে না, সে গান আমি গাইতে পারি না। মানুষের কথা বলাই সাংস্কৃতির কাজ।

মাসুম আজিজ আরও বলেন, উদীচী সংগঠনটির জন্মই একটি রাজনৈতিক বিশ্বাসের ওপরে। সেখানে মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার, শ্রমজীবী মানুষের অধিকার এবং একটি শ্রেণীহীন সমাজের স্বপ্ন নিয়েই জন্ম হয় উদীচীর। সে জন্যই এটা আমাদের প্রাণের সংগঠন।

"যে সংস্কৃতি মানুষের কথা বলে নাহ যে সংস্কৃতি, অপস্কৃতির কাছে আমরা নাই, আমরা মনে করি শিল্প সংস্কৃতি, নাটক, গান এগুলো একটা মস্তবড় শক্তি, মস্তবড় ক্ষমতাধর একটা মাধ্যম যেটিকে লালন করা খুব জরুরি, একজন মানুষের মানুষ হয়ে উঠবার পক্ষে এই জায়গা থেকেই আমরা মনে করি যে উদীচী চিরজীবী হোক, বেঁচে থাকুক, অন্তত আমরা দেখে যেতে চাই।"

বর্ষা বরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. কামালউদ্দীন আহমদ। এসময় তিনি বলেন, সাম্প্রদায়িকতা যেভাবে আমাদের গ্রাস করছে সেটি মোকাবেলা করার জন্য সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের কোন বিকল্প নেই। উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী ১৯৯৯ সালে আক্রান্ত হয়েছে অসাম্প্রদায়িক চেতনার জন্য। ১৯৭৫ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করার পর উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীই এগিয়ে এসেছিল প্রতিবাদ জানানোর জন্য।

এসময় গণসংগীতশিল্পী ও সংগীতে অবদানে একুশে পদকপ্রাপ্ত, উদীচী কেন্দ্রীয় সংসদের সহ সভাপতি মাহমুদ সেলিম, বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের প্রধান উপদেষ্টা দর্শন বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ হাফিজুল ইসলাম সহ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
 
উদীচী জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের নানাবিধ পরিবেশনার পাশাপাশি অনুষ্ঠানে ছিলো জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় আবৃত্তি সংসদ, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় রঙ্গভূমি ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় মুক্তমঞ্চের অংশগ্রহণ।

অনুষ্ঠানের গোধূলিলগ্ন থেকে ছিলো বিশ্ববিদ্যালয়কেন্দ্রিক স্বপ্নবাজি, আবোল তাবোল, রিজেক্টেড, গল্প, ট্রাভেলার্স ও মনের মানুষ ব্যান্ডদলগুলোর সংগীত পরিবেশনা। এছাড়াও উদীচী জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের পরিবেশনায় লাঠি খেলা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রসঙ্গত, “বর্ষাকল্প” অনুষ্ঠানটি সম্প্রতি চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় হতাহত সকল শ্রেণী-পেশার মেহনতী মানুষদের উৎসর্গ করা হয়।

আইআর /