স্ত্রীকে জবাই করে হত্যা, সেনবাগে আটক ঘাতক স্বামী

Published: Tue, 23 Feb 2021 | Updated: Tue, 23 Feb 2021

মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, নোয়াখালী : জেলার সেনবাগে স্ত্রীকে জবাই করে হত্যার দায়ে তার স্বামীকে আটক করেফে পুলিশ।মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০ টার সময় উপজেলার কাবিলপুর ইউনিয়নের সাদেকপুর গ্রামের ওয়ালী ভূঁইয়ার বাড়িতে হত্যাকাণ্ডটি ঘটে।

নিহত গৃহবধূর নাম তাহমিনা আক্তার প্রকাশ মিনা (৫৫)। পুলিশ তার স্বামী আবদুর রব প্রকাশ বাবুল ড্রাইভারকে গ্রেফতার করেছে। এসময় তার কাছ থেকে হত্যায় ব্যবহৃত ছোরা জব্দ করা হয়। 

নিহত গৃহবধূর পিতার বাড়ি রাজশাহীতে। তিনি তুহিন (৩০) ও তারেক (২৮) নামের দুই সন্তানের জননী। 

স্থানীয়রা জানায়, ঘাতক আবদুর রব ৪ মাস আগে সৌদি আরব থেকে দেশে আসেন। টাকা-পয়সার হিসাব-নিকাশ নিয়ে সম্প্রতি তার স্ত্রীর সঙ্গে দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয়। এর জের ধরে মিনা খুন হন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

নহতের পুত্রবধূ জান্নাতুল নাইম জানান, সকালে তার শ্বশুর-শাশুড়ি নাস্তা খাওয়ার পর দুই জুনে মিলে গোসলখানায় গোসল করতে যান। এরপর শ্বাশুড়ির চিকৎকার শুনে এসে দেখেন তার শ্বশুর আবদুর রব শ্বাশুড়িকে ধারালো ছোরা দিয়ে জবাই করে গলা কেটে হত্যা করে।

এ সময় তিনি এগিয়ে যাবার চেষ্টা করলে শ্বশুর তাকেও ছোরা নিয়ে ধাওয়া করলে তিনি আত্মরক্ষায় পার্শ্ববর্তী বাড়িতে গিয়ে আশ্রয় নেন। এসময় তিনি তাদের বিষয়টি জানালে প্রতিবেশীরা এসে তাকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়।  

খবর পেয়ে সেনবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মোঃ আবদুল বাতেন মৃধার নেতৃত্বে সঙ্গীয় পুলিশ ফোর্স ঘটনাস্থলে পৌঁছে ঘাতক আবদুর রব প্রকাশ বাবুলকে আটকক করে এবং লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।

ওসি আবদুল বাতেন মৃধা জানান, মিনাকে গলা কেটে জবাই হত্যার পর তাকে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে। এঘটনায় থানায় হত্যার মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও নিশ্চিত করেন তিনি।

ও/এসএ/