|

রাসিক মেয়রকে সর্তক করে রিটার্নিং কর্মকর্তার চিঠি

Published: Thu, 29 Sep 2022 | Updated: Thu, 29 Sep 2022

জেলা পরিষদ নির্বাচনের আচরণবিধি যথাযথভাবে প্রতিপালনে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) মেয়র ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনকে চিঠি দিয়েছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা। চিঠিতে মেয়রকে নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে চলতে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) বিকালে রাজশাহী জেলা পরিষদ নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক আবদুল জলিল স্বাক্ষরিত এই চিঠি মেয়রের দপ্তরে পাঠানো হয়। চিঠি পাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেছেন মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন।

চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘স্থানীয় পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে প্রতীয়মান হয় আপনি একজন প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করেছেন। যেহেতু জেলা পরিষদ (নির্বাচন আচরণ) বিধিমালা-২০১৬ এর বিধি ২ (১৪) অনুসারে সরকারি সুবিধাভোগী অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি এবং সিটি করপোরেশনের মেয়র অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। সেহেতু উক্ত বিধিমালার বিধি ২২ (১) অনুসারে আপনি প্রচারণায় বা নির্বাচনী কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না। এমতাবস্থায় বিধিমালা যথাযথভাবে প্রতিপালনের জন্য আপনাকে অনুরোধ করা হলো।’

রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক আবদুল জলিল বলেন, “আমরা নির্বাচনটিকে বিতর্কমুক্ত করতে চাই। যেহেতু রাজশাহী সিটি মেয়র প্রতিমন্ত্রীর পদমর্যাদার তাই চিঠি দিয়ে তাকে সতর্ক করা হয়েছে।”

এ বিষয়ে সিটি মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, “নির্বাচনী আচরণবিধি যথাযথভাবে প্রতিপালনের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। আমি সেটা মেনে চলব। আমরাও চাই বিতর্কমুক্ত সুন্দর ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন হোক।”

উল্লেখ্য, আগামী ১৭ অক্টোবর রাজশাহী জেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এতে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল ছাড়াও চারজন চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। 

স্বতন্ত্র তিন প্রার্থীর মধ্যে আখতারুজ্জামান আখতার আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী। অপর দুই প্রার্থী হলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আনোয়ার ইকবাল ও আফজাল হোসেন।

প্রসঙ্গত, মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন দলীয় প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী সভায় অংশ নিয়েছেন। সর্বশেষ গত ২৬ সেপ্টেম্বর দলীয় কার্যালয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর নির্বাচনী সভায় অংশ নেন তিনি।

আইআর /