|

যাত্রীর চাপে শিমুলিয়া ঘাট থেকে ছাড়ল ফেরি

Published: Sat, 08 May 2021 | Updated: Sat, 08 May 2021

মুন্সীগঞ্জ সংবাদদাতা : মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাট থেকে দুপুর ১২টা ৪৩ মিনিটে প্রায় ৩ হাজার যাত্রী ও ৭টি এম্বুলেন্স নিয়ে ছেড়ে গেছে ফেরী শাহ পরান। এর আগে ফেরি এনায়েতপুরী শিমুলিয়া ঘাট থেকে প্রায় ৪ হাজার যাত্রী নিয়ে দুপুর ১২টা ২৩ মিনিটে ছেড়ে যায়।

এরও আগে সকাল ৯টায় শিমুলিয়া ঘাট হতে ছেড়ে যায় ফেরি কুঞ্চলতা এ নিয়ে ৩টি ফেরীতে মোট ১১/১২ হাজার যাত্রী শিমুলিয়া ঘাট হতে মাদারীপুরের বাংলাবাজারের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। বর্তমানে ঘাটে তেমন যাত্রী নেই। 

সরেজমিনে শিমুলিয়া ঘাটে গিয়ে দেখা যায়, সকাল থেকে ঘাটে অপেক্ষমান যাত্রীরা ফেরি এনায়েতপুরী ছেড়ে যাওয়ার ঘোষনা দেওয়ার সাথে সাথে ফেরিতে উঠতে ৩ নং ঘাটে ধাক্কাধাক্কি করে ভিড় জমাতে থাকে। ফেরির গেট খোলার আগেই গেটের পাশ দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে লাফিয়ে উঠতে থাকে যাত্রীরা। এছাড়া গেইট দিয়ে ধাক্কাধাক্কি করে না উঠতে পরে অনেকে পানি দিয়ে হেঁটে একে অন্যের সহযোগিতায় টানা হিচরা করে ফেরীতে উঠে। 

ফেরিটিতে প্রায় ৫ হাজার যাত্রী পার হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এদিকে দুপুর ১২.৪৩ মিনিটের সময় ছেড়ে যায় ফেরি শাহ পরান। ওই ফেরিতে ৭টি অ্যাম্বুলেন্স পারাপার হয়। তবে ওই সময় যাত্রীর চাপ অনেকটা কম থাকায় যাত্রীরা স্বাভাবিকভাবে হেঁটে ফেরিতে উঠতে দেখা যায়।

এ ব্যাপারে মাওয়া ট্রাফিক পুলিশের টিআই হেলাল উদ্দিন জানান, এখোন শিমুলিয়া ঘাটে ৪/৫ শত পণ্যবাহী ট্রাক ও ক্যাভাট ভ্যান রয়েছে। ৩টি ফেরি ছেড়ে যাওয়ার পর এখোনো যাত্রীচাপ অনেকটাই কমেছে। ঘাটে ৫/৭ শতাধিক যাত্রী রয়েছে।

শিমুলিয়া ঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক (বানিজ্য) ফয়সাল আহম্মেদ জানান, নতুন করে আর কোন ফেরি ছেড়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত আপাতত নেই। অ্যাম্বুল্যান্স পার করার জন্য একটি ফেরি আর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য অপর দুইটি ফেরি ছাড়তে বাধ্য হয়েছে ঘাট কর্তৃপক্ষ।

-এমজে