|

পার্বতীপুরে পাঁচ বছরের শিশুকে গলা টিপে হত্যা করলো মা!

Published: Sat, 27 Feb 2021 | Updated: Sat, 27 Feb 2021

মোঃআব্দুস সাত্তার, দিনাজপুর : দিনাজপুরের পার্বতীপুরে গর্ভধারনী মা রিতা বেগম (২৫) পাঁচ বছর বয়সী নিজ শিশু কন্যা হাসিকে গলা টিপে হত্যার পরে পুকুরে ফেলে দেয়ার ঘটনা ঘটেছে। ফেলে দেয়ার পরে পিতার বাড়িতে গিয়ে স্বজনদের জানান, ‍‘আমার কন্যা হাসিকে গলা টিপে হত্যা করে পুকুর ফেলে দিয়েছি। আপনারা পুকুর থেকে লাশ উদ্ধার করেন’। 

ঘটনাটি ঘটেছে পার্বতীপুর  শহরের গুলপাড়া মহল্লায়। শুক্রবার (২৬ ফেব্রুযারি) বেলা আনুমানিক সাড়ে তিনটার দিকে হাসিনুর সরদার টুংকুর শ্বশুড়বাড়ী গুলপাড়ার মহল্লার নুর মোহাম্মদ সরদারের বাড়িতে মা রিতা বেগম গলা টিপ হত্যা করে ৫ বছর বয়সী শিশু কন্যাকে। বিকেলে  স্বজনরা পুকুর থেকে শিশুটির মৃত দেহ উদ্ধার করে । 

স্বজনরা জানান, গর্ভধারিনী মা রিতা বেগম অনার্সের ছাত্রী। ছাএজীবন থেকে মানসিক ভারসাম্যহীন। সে সময়-অসময় অনেক বড় বড় দুর্ঘটনা ঘটিয়েছে পরিবারে। পরিবারিক সূত্রে জানা গেছে রিতা মানষিক ভারসাম্যহীন হওয়ায় সন্তান নিয়ে বাবার বাড়ি পার্বতীপুরই দীর্ঘদিন যাবত বসবাস করে করছিল ।
 
পার্বতীপুর রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহ্ আল-মামুন ঘটনাস্হল গিয়ে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করে শিশুটির মরদেহ ও মাকে থানায় নিয়ে আসি। এ ঘটনায় এলাকার শত শত নারী-পুরুষ ভিড় জমায় এবং স্বজনদের আহাজারিতে পরিবেশ ভারী হয়ে উঠে।

আইআর /