|

৬ শিল্পখাতকে শিশুশ্রম মুক্ত ঘোষণা

Published: Thu, 04 Feb 2021 | Updated: Thu, 04 Feb 2021

অভিযাত্রা ডেস্ক : ছয়টি শিল্প খাতকে শিশুশ্রম মুক্ত ঘোষণা করেছে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়। সেক্টরগুলো-ট্যানারি, গ্লাস, সিরামিক, জাহাজ পুনঃপ্রক্রিয়াজাতকরণ, রপ্তানিমূলক চামড়াজাত শিল্প ও পাদুকা এবং রেশম।

বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৩টায় রাজধানীর শ্রম ভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মুন্নুজান সুফিয়ান। সংবাদ সম্মেলনে শ্রম মন্ত্রণালয়ের সচিব কে এম আবদুস সালামের সভাপতিত্বে এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার প্রতিনিধি সৈয়দা মুনিরা সুলতানা, জাতীয় শ্রমিক লীগের কার্যকরী সভাপতি আলাউদ্দিন মিয়া প্রমুখ।

মুন্নুজান সুফিয়ান বলেন, ২০১৯ সালের ২৯ জানুয়ারি জাতীয় শিশুশ্রম কল্যাণ পরিষদের সভার সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর কর্তৃক প্রস্তাবিত সুপারিশ বিবেচনাক্রমে বিভিন্ন সেক্টরকে শিশুশ্রমমুক্ত ঘোষণা করার ক্ষেত্রে সুপারিশ প্রণয়নের লক্ষ্যে ২০১৯ সালে জাতীয় মনিটরিং কোর কমিটি গঠন করা হয়। এরপর ট্যানারি, গ্রাস, সিরামিক, জাহাজ পুন:প্রক্রিয়াজাতকরণ, রপ্তানিমুখী চামড়াজাত শিল্প ও পাদুকা এবং রেশমের ৬টি শিল্প সেক্টরের মালিক পক্ষের অ্যাসোসিয়েশন থেকে মন্ত্রণালয়কে লিখিতভাবে জানানো হয় যে, এসব সেক্টরে কোনো শিশুশ্রম নেই।

তিনি বলেন, সংশ্লিষ্ট সেক্টরের অ্যাসোসিয়েশন থেকে প্রত্যয়ন পাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে জাতীয় মনিটরিং কোর কমিটি গত নভেম্বর ও ডিসেম্বর মাসে ৬টি সেক্টরের বিভিন্ন স্থানে অবস্থিত কারখানাসমূহ পরিদর্শন করে। জাতীয় মনিটরিং কোর কমিটির সরেজমিন পরিদর্শনের আগেই কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের সংশ্লিষ্ট এলাকার পরিদর্শকরা কারখানাগুলো পরিদর্শন করে মন্ত্রণালয়ে প্রতিবেদন পাঠায়। জাতীয় মনিটরিং কোর কমিটি ৬টি সেক্টর পরিদর্শন সম্পন্ন করে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ে ৬টি প্রতিবেদন দাখিল করে।

শ্রম মন্ত্রণালয়ের সচিব কে এম আবদুস সালাম বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে আরো কিছু সেক্টরকে শিশুশ্রমমুক্ত ঘোষণা করা হবে। ইতোমধ্যে কেরানীগঞ্জকে শিশুশ্রমমুক্ত করার লক্ষ্যে কাজ চলছে।

আরও বক্তব্য রাখেন লেদারগুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের নির্বাহী পরিচালক কাজী রওশন আরা সুমি, বাংলাদেশ সিরামিক ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম মোল্লা প্রমুখ।

ও/এসএ/