|

উলিপুরে শিক্ষকের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ

Published: Wed, 24 Nov 2021 | Updated: Wed, 24 Nov 2021

কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের উলিপুরে সরকারি অর্থ আত্মসাত, বদলি ও নিয়োগ বাণিজ্য করার অভিযোগে মো. জাহাঙ্গীর হোসেন নামে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে তদন্ত করতে চিঠি দিয়েছে দুর্নীত দমন কমিশন (দুদক)। 

দৈনিক ও সাম্প্রতিক অভিযোগ সেল এর পরিচালক উত্তম কুমার মন্ডল স্বাক্ষরিত পত্রে তদন্ত প্রতিবেদন আগামী ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে প্রেরণ করতে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে বলা হয়। অভিযুক্ত মো. জাহাঙ্গীর হোসেন দক্ষিণ সাদুল্যা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ শহিদুল ইসলাম চিঠির সত্যতা নিশ্চিত করেন।

তদন্ত চিঠির আলোকে জানা যায়, উলিপুর উপজেলার দক্ষিণ সাদুল্যা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন প্রতিষ্ঠানটির ২০১৯-‘২০ অর্থ বছরের জন্য দুর্যোগকালিন ব্যয় বাবদ ৫ হাজার, প্রাক শ্রেণীর মালামাল বাবদ ১০ হাজার, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের স্লিপ বাবদ ৭০ হাজার ও ক্ষুদ্র মেরামত বাবদ ২ লাখ টাকা সহ মোট ২ লাখ ৮৫ হাজার টাকা বরাদ্দ আসে। কিন্তু কোন প্রকার কাজ না করে তিনি সরকারি বরাদ্দের পুরো টাকাই আত্মসাত করেন।

তদন্তপত্রে আরো জানা যায়, তিনি উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি হওয়ায় প্রভাব খাটিয়ে নিয়োগ বাণিজ্য, শিক্ষক বদলি ও নানা নিয়ম বহির্ভূত কাজ করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। এ বিষয়ে স্থানীয় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হলে দুর্নীত দমন কমিশন (দুদক) অভিযোগের পেক্ষিতে ওই শিক্ষকের তদন্ত করতে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. শহিদুল ইসলামকে চিঠি দেন। চিঠির আলোকে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আগামী ৩০ নভেম্বর বিদ্যালয়ে সরেজমিন তদন্তে সহযোগীতা করার জন্য বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের উপস্থিত থাকার জন্য বলেন।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত দক্ষিণ সাদুল্যা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন চিঠি পাওয়ার সত্যতা স্বীকার করেন।

 

ডব্লিউইউ