|

রাজৈরে কলেজ ছাত্রীর আত্মহত্যা

Published: Thu, 02 Sep 2021 | Updated: Thu, 02 Sep 2021

জাহিদ হাসান, মাদারীপুর জেলা প্রতিনিধি: মাদারীপুরের রাজৈরে স্বপ্না বাড়ৈ (১৭) নামে এক কলেজ ছাত্রীর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সকালে তাদের নিজ বাড়ি উপজেলার খালিয়া ইউনিয়নের ছাতিয়ানবাড়ী গ্রাম থেকে গলায় ফাঁস দেওয়া মৃতদেহটি উদ্ধার করা হয়। 

সে একই গ্রামের গোপাল বাড়ৈর মেয়ে এবং টেকেরহাট শহীদ সরদার সাজাহান গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের ছাত্রী। এলাকাবাসীর ধারণা, এ মৃত্যুর ঘটনার পিছনে মায়ের পরকীয়ার কারণ রয়েছে বলে জানা গেছে।

এলাকাবাসী জানায়, মৃত স্বপ্নার বাবা গোপাল দীর্ঘদিন প্রবাসে থাকার সুবাদে তার মা আহ্লাদী বাড়ৈ পার্শ্ববর্তী সেনদিয়া গ্রামের দীনবন্ধু মন্ডলের ছেলে দেবদাস মন্ডলের সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে। গোপাল দেশে ফিরে এসে স্ত্রীর পরামর্শ মোতাবেক দেবদাসের সাথে ব্যবসা শুরু করে। ফলে উভয় পরিবারের মধ্যে সম্পর্ক আরও ঘনিষ্ঠ হয়ে ওঠে। এছাড়া প্রায় কয়েক বছর আগে দেবদাসকে ছাতিয়ানবাড়ী এলাকাবাসী পরকীয়ার অভিযোগে ধরে গাছের সাথে বেঁধে উত্তম-মাধ্যম দিয়ে সালিশ বৈঠকে জরিমানা করেছিল। তারপরেও থেমে থাকেনি তাদের এই সম্পর্ক। এজন্যই লোক লজ্জার ভয়ে স্বপ্না ঘরের আড়াঁর সাথে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

স্বপ্নার মা আহ্লাদী বাড়ৈ জানান, আমার মেয়ে সকালে কলেজে গিয়েছিল। কলেজ থেকে ফেরার পর ওর মন খারাপ দেখা যায়। জিজ্ঞাসা করলে বলে কিছুই হয়নি। তারপর রাতে এই ঘটনা।
 
স্বপ্নার বাবা গোপাল বাড়ৈ জানান, আমাদের পারিবারিক কলহ কিছুই হয়নি। কী কারণে আমার মেয়ে আত্মহত্যা করল বুঝলাম না।
 অভিযুক্ত দেবদাস মন্ডল জানায়, এলাকাবাসি শত্রুতাবসত আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছে। ওই পরিবারের সাথে আমার ব্যবসায়িক সম্পর্ক রয়েছে। সেই সুবাদে ওই বাড়িতে যাওয়া আসা করতাম। 

ওসি মো. শেখ সাদিক জানান, একজন কলেজ ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে খবর পেয়ে সেখানে পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। তারা মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। রিপোর্টের পর বিস্তারিত জানা যাবে।

 

ডব্লিউইউ