|

মিয়ানমারে রাতভর অভিযানে গুলি, নিহত ৬০

Published: Sat, 10 Apr 2021 | Updated: Sat, 10 Apr 2021

মিয়ানমারে জান্তাবিরোধী বিক্ষোভকারীদের ব্যারিকেড অপসারণ করতে গিয়ে দেশটির মধ্যাঞ্চলীয় শহর বাগোতে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে ৬০ জনেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, প্রাচীন এই শহরটির প্যাগোডা ও স্কুলের খেলার মাঠে লাশের স্তুূপ করে রেখেছে জান্তা বাহিনী। অভ্যুত্থানের পর থেকে এ পর্যন্ত দেশটিতে অন্তত ৬৫০ বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছে। 

মার্কিন সরকারের অর্থায়নে পরিচালিত সংবাদমাধ্যম রেডিও ফ্রি এশিয়ার (আরএফএ) এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, শুক্রবার (০৯ এপ্রিল) মিয়ানমারের বাগো শহরে গুলিবৃষ্টি চালিয়েছে পুলিশ ও সেনাবাহিনী।

গত ১ ফেব্রুয়ারির সেনা অভ্যুত্থানের বিরোধিতা করতে বাগো শহরের রাস্তায় ব্যারিকেড গড়ে তোলা হয়। প্রায় আড়াই লাখ মানুষের শহরটিতে শুক্রবার সন্ধ্যা নামার আগেই অভিযান শুরু করে নিরাপত্তা বাহিনী।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাগো শহরের এক বাসিন্দা বলেন, ‘আমরা বুঝতে পেরেছিলো তারা (নিরাপত্তা বাহিনী) আসতে পারে। আর এজন্য রাতভর অপেক্ষা ছিল। সেনা সদস্যরা ভারী অস্ত্র ব্যবহার করেছে। আমরা মর্টার শেলও পেয়েছি। মেশিনগান দিয়েও প্রচুর গুলি করা হয়েছে। তাজা গুলি ছাড়াও সেনা সদস্যরা গ্রেনেড লাঞ্চারও ব্যবহার করেছে।’

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, শনিবার সকাল আটটা পর্যন্ত মাত্র তিনটি মরদেহ উদ্ধার করতে পেরেছেন তারা। এছাড়া জিয়ামুনি প্যাগোডা এবং কাছের একটি স্কুলে স্তুূপ করে রাখা মরদেহ সরিয়ে নিচ্ছে সেনাবাহিনী।

-এমজে