|

বিরলে ৭ বছর বয়সী শিশুকে ধর্ষণ, শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন

Published: Tue, 07 Dec 2021 | Updated: Tue, 07 Dec 2021

তাজুল ইসলাম, বিরল (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দিনাজপুরের বিরলের পল্লীতে ৭ বছর বয়সী এক শিশু কন্যাকে ধর্ষণ করে গলায় ফাঁস লাগিয়ে হত্যার চেষ্টার প্রতিবাদে ও প্রকৃত অপরাধীর দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবিতে বাংলাদেশ মানবাধিকার কল্যাণ ট্রাস্ট বিরল উপজেলা শাখা ও পৌর শাখার যৌথ আয়োজনে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

৭ ডিসেম্বর সকাল ১১টায় বিরল উপজেলা কেন্দ্রিয় শহীদ মিনারের সামনের সড়কে বাংলাদেশ মানবাধিকার কল্যাণ ট্রাস্ট বিরল উপজেলা শাখার সভাপতি আব্দুল মালেকের সভাপতিত্বে ওই মানববন্ধ ও প্রতিবাদ সভা হয়।

মানববন্ধনে একাত্মতা প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন বিরল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রমাকান্ত রায়, বিরল প্রেসক্লাবের সভাপতি এম এ কুদ্দুস, পৌর শাখা মানবাধিকার কল্যাণ ট্রাস্টের সভাপতি আলহাজ্ব মহসিন আলী, ভান্ডারা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ মামুন, উপজেলা শাখা মানবাধিকার কল্যাণ ট্রাস্টের সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর হাফিজুর রহমান, ধর্ষণের শিকার শিশুটির বাবা।

উল্লেখ্য, গত ২ ডিসেম্বর দুপুরের দিকে উপজেলার ভান্ডারা ইউনিয়নের ভান্ডারা গ্রামে শিশুটির বাবা তাকে বাড়িতে রেখে পাশের পাগলাপীর বাজারে যায় এবং শিশুটির মা বাড়ির পাশের জমিতে ঘাস কাটছিল। ঘাস কেটে সে বাড়িতে ঢুকে দেখতে পায় তার ৭ বছর বয়সী শিশুকন্যা ঘরের বারান্দায় তীরের সাথে গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলছে। তা দেখে চিৎকার দিয়ে তাঁকে নীচে নামায়। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে কর্তব্যরত ডাক্তার উন্নত চিকিৎসার জন্য দিমেক হাসপাতালে স্থানন্তর করে। ঘটনার পর হতে ওই শিশুকন্যা দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছে। গত ৫ দিনেও ওই শিশুকন্যার জ্ঞান ফিরেনি। এদিকে, বিরল থানার পুলিশ রাতেই ওই এলাকার রাসেল নামের একজনকে আটক করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।

বক্তরা আইন প্রয়োগকারী সংস্থার দৃষ্টি কামনা করে বলেন, সঠিকতদন্ত করে প্রকৃত অপরাধীকে আইনের আওতায় এনে ওই নরপশুর দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানিয়ে জানাই।

পরে অপরাধীর দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবি জানিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে স্বরাষ্টমন্ত্রী বরাবরে একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

বিরল উপজেলা আওয়ামী লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, নারী ক্লাবসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনগুলো এই বর্বরোচিত ঘটনার সাথে জড়িত ব্যক্তির দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে একাত্মতা  প্রকাশ করেছেন।

 

ডব্লিউইউ