|

দুশানবেতে রাষ্ট্রপতিকে লাল গালিচা সংবর্ধনা

Published: Fri, 14 Jun 2019 | Updated: Fri, 14 Jun 2019

অভিযাত্রা ডেস্ক : ‘কনফারেন্স অন ইন্টারেকশন অ্যান্ড কনফিডেন্স বিল্ডিং মেজারস ইন এশিয়ার (সিআইসিএ) পঞ্চম সম্মেলনে যোগ দিতে তাজিকিস্তানের রাজধানী দুশানবে পৌঁছেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) স্থানীয় সময় রাত ১০টার দিকে রাষ্ট্রপতিকে বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের উড়োজাহাজ 'হংসবলাকা' দুশানবে ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে অবতরণ করে। দুশানবেতে নামার পর রাষ্ট্রপতিকে অভ্যর্থনা জানান তাজিকিস্তানের পার্লামেন্টের উচ্চ কক্ষের চেয়ারম্যান এবং দুশানবের ডেপুটি মেয়র। বিমানবন্দরে রাষ্ট্রপতিকে 'স্ট্যাটিক গার্ড' ও লাল গালিচা সংবর্ধনা দেওয়া হয়। বিমান বন্দর থেকে মোটর শোভাযাত্রা সহকারে হোটেল আভেস্তায় যান রাষ্ট্রপতি। দুশানবেতে এই হোটেলে অবস্থান করবেন তিনি। 

এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে শান্তি, নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা প্রসারে কাজ করে সিআইসিএ। কাজাখস্তানের রাজধানী নুর সুলতানে এই সংস্থার সদর দপ্তর অবস্থিত। বর্তমানে ২৭টি দেশ এই সংস্থার সদস্য। সদস্য দেশগুলো হল আফগান্স্তিান, আজারবাইজান, বাহরাইন, বাংলাদেশ, কম্বোডিয়া, চায়না, মিশর, ভারত, ইরান, ইরাক,ইসরাইল, জর্ডান, কাজাখস্তান, কিরগিজস্তান, মঙ্গোলিয়া, পাকিস্তান, ফিলিস্তিন, কাতার, দক্ষিণ কোরিয়া, রাশিয়া, শ্রীলঙ্কা, তাজিকিস্তান, থাইল্যান্ড, তুরস্ক, সংযুক্ত আরব আমিরাত, উজবেকিস্তান এবং ভিয়েতনাম। 

এছাড়া বেলারুশ, ইন্দোনেশিয়া, জাপান, লাওস, মালয়েশিয়া, ফিলিপিন্স, ইউক্রেইন ও যুক্তরাষ্ট্র এর পর্যবেক্ষক হিসেবে রয়েছে। জাতিসংঘ ছাড়াও আন্তর্জাতিক অভিবাসনসংস্থা-আইওএম, লিগ অব আরব স্টেটস, অর্গানাইজেশন ফর সিকিউরিটি অ্যান্ড কোঅপারেশন ইন ইউরোপ, পার্লামেন্টারি অ্যাসেম্বলি অব দ্যা টার্কিক স্পিকিং কান্ট্রিজ এরসিআইসি’র পর্যবেক্ষক। 

এশিয়াভিত্তিক এই সংস্থার বর্তমান সভাপতির দায়িত্বে আছে তাজিকিস্তান। ১৯৯২ সালে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে এই সংস্থা প্রতিষ্ঠার প্রথম প্রস্তাব করে কাজাখস্তানের প্রেসিডেন্ট নুর সুলতান নাজারবায়েভ। এর প্রথম সম্মেলন হয় ২০০২সালে। ২০১৪ সালে বাংলাদেশ এই ফোরামের সদস্য হয়। 

প্রেস সচিব জানান, দুশানবেতে সম্মেলন শেষে রাষ্ট্রপতি উজবেকিস্তান সফর করবেন। সফর শেষে ১৯ জুন দেশে ফেরার কথা রয়েছে আবদুল হামিদের।
 

/এসিএন