|

পাঁচ বছরে ৪০ টেস্ট, ১৪৬ ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলবে বাংলাদেশ

Published: Sun, 17 Apr 2022 | Updated: Mon, 18 Apr 2022

গত দুই দশকের বেশি সময় ধরে টেস্ট অঙ্গনে ১৩০টি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। গড়ে ৬টির মতো করে মাত্র। তবে টাইগারদের জন্য সুখের খবর হচ্ছে, আগামী পাঁচ বছরে কম করে হলেও ৪০টি টেস্ট খেলবে। বাড়তে পারে সেই সংখ্যাও।

কেবল টেস্ট ম্যাচের উন্নতি নয়, ২০২৩-২৭ এফটিপিতে বাংলাদেশের ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি ম্যাচের সংখ্যাও বাড়ছে। এ সময়ের মধ্যে আইসিসি ও এসিসির ইভেন্ট ছাড়াই ৭০ ওয়ানডে ও ৭৬ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ।

রবিবার (১৭ এপ্রিল) গণমাধ্যমকে এমন তথ্য জানান বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) অপারেশন্সের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস চৌধুরী।

সদ্যই সংযুক্ত আরব আমিরাতে আইসিসির মিটিংয়ে যোগ দিয়েছেন ক্রিকেট অপারেশন্সের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস। সেখান থেকে ফিরে টাইগারদের জন্য এমন সুখবর দিলেন তিনি।

জালাল ইউনুস বলেন, ‘আইসিসি ও এসিসি ইভেন্ট ছাড়াই এসব ম্যাচ খেলার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। এ নিয়ে বিশ্বের ক্রিকেট খেলুড়ে সব বোর্ডের সঙ্গে কথাবার্তা চলছে। সিরিজগুলো চূড়ান্ত হলেই এফটিপিতে আপলোড করা হবে।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‌‘আলাপ আলোচনা করে যেগুলো চূড়ান্ত করেছি এরমধ্যে ৪০+ টেস্ট , ৭০+ ওডিআই, ৭৬+ আছে টি-টোয়েন্টি। হতে পারে এখান থেকে কিছু বদল হতে পারে। এইগুলো আইসিস ইভেন্টের বাইরে। এরপর তো আইসিসি ইভেন্ট আছেই। এরমধ্যে ট্রাইনেশন সিরিজও খেলতে পারি।’

সেক্ষেত্রে বাংলাদেশ কেবল দ্বিপাক্ষিক সিরিজের আওতায় এতগুলো ম্যাচ খেলবে। ফলে তিন ফরম্যাটেই ম্যাচ সংখ্যা বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে টাইগারদের। এ ছাড়াও আসন্ন এফটিপিতে বাংলাদেশের অস্ট্রেলিয়া সফরেরও কথা রয়েছে। ২০২৬ সালে অজিরা ২ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে আসবে। পরের বছর সেখানে যাবে টাইগাররা।

অজিদের সঙ্গে সিরিজ নিয়ে ক্রিকেট অপারেশন্সের চেয়ারম্যান বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়া ২০২৭ সালে দুটো টেস্ট খেলতে যাবে বাংলাদেশ। এখনো নিশ্চিত হয়নি। ২০২৬ সালে ওরা আসবে।’

-এমজে