|

বশেমুরবিপ্রবিসাস সাংবাদিক সমিতির মানববন্ধন 

Published: Thu, 28 Oct 2021 | Updated: Thu, 28 Oct 2021

আব্দুল ওহাব, বশেমুরবিপ্রবি : হাইকোর্টের একটি মামলার প্রচারিত সংবাদকে কেন্দ্র করে চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক মাসউদুর রহমান সহ ছয়জনের বিরুদ্ধে ১শ কোটি টাকার মানহানির অভিযোগে মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (বশেমুরবিপ্রবিসাস)। 

বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) দুপুর ১২ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকবৃন্দ ও সাধারণ শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন চ্যানেল ২৪ এর স্টাফ রিপোর্টার রাজীব আহম্মেদ রাজু। 

মানববন্ধনে বিশ্ববিদ্যালয়ের সংবাদ কর্মী সাগর দে বলেন, একজন সাংবাদিক তার নিজের নৈতিক জায়গা থেকে সংবাদ প্রকাশ করায় যদি মানহানি মামলার আসামি হতে হয় তাহলে এটা স্বাধীন গণমাধ্যমের জন্য হুমকিস্বরূপ। তাই সম্প্রতি চ্যানেল ২৪ এর মাসুদুর রহমান ভাই সহ ৬ জনের বিরুদ্ধে প্রতিমন্ত্রীর ছেলের মানহানি মামলার ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিক সমিতির সভাপতি ফাতেমা তুজ জিনিয়া বলেন, একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ হলো গণমাধ্যম। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে আমরা দেখেছি বারবার গণমাধ্যমের স্বাধীনতা হরণ করার চেষ্টা চলছে। একজন মায়ের অবশ্যই অধিকার রয়েছে তার সন্তানের সাথে দেখা করার, তার সন্তানকে কাছে পাওয়ার। কেউ যদি এই অধিকার হরণ করে তবে সাংবাদিকরা অবশ্যই সেই ঘটনা নিয়ে সংবাদ লিখতে পারে৷ কিন্তু এই সংবাদের জন্য যদি তার বিরুদ্ধে মামলা করা হয় সেটি অবশ্যই ষড়যন্ত্রমূলক মামলা। আমরা অবিলম্বে এই মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি।

বশেমুরবিপ্রবি সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাইনউদ্দিন পরান বলেন, আমরা দেখছি সংবাদ প্রকাশের জেরে সাংবাদিকদের উপর বিভিন্ন সময়ে মামলা-হামলার ঘটনা ঘটছে। গণমাধ্যমের কন্ঠরোধ করার জন্য অব্যাহতভাবে এই ঘৃণ্য অপচেষ্টা চালু রয়েছে। সর্বশেষ চ্যানেল টোয়েন্টিফোর এর সিনিয়র রিপোর্টার মাসউদুর রহমানসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে হয়রানি মূলক ভাবে শতকোটি টাকার মানহানির মামলা করা হয়েছে, যা অনভিপ্রেত ও সাংবাদিকদের কন্ঠরোধ করার শামিল। আমরা এই ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানাই এবং অনতিবিলম্বে এই মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে সাংবাদিকদের হয়রানি করা থেকে বিরত থাকার জন্য সংশ্লিষ্টদের আহবান জানাই। এর পাশাপাশি স্বাধীন সাংবাদিকতার পরিবেশ নিশ্চিতে সরকারের কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।

আইআর /