|

তরুণ কলাম লেখক ফোরামে বর্ষসেরার তালিকায় জবি

Published: Sun, 25 Jul 2021 | Updated: Sun, 25 Jul 2021

জবি প্রতিনিধি: বাংলাদেশ তরুণ কলাম লেখক ফোরামের শাখা সমূহের সাংগঠনিক তৎপরত ও কার্যক্রমের ভিত্তিতে ২০২০-২০২১ বছরে সেরা শাখার তালিকায় স্থান পেয়েছে বাংলাদেশ তরুণ কলাম লেখক ফোরামের জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা। 

শুক্রবার, ২৩ জুলাই সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টায় সংগঠনটির তৃতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক সন্ধ্যায় বর্ষসেরা শাখা সমূহের নাম ঘোষণা করেন আমন্ত্রিত অতিথিরা।

তারা বলেন, বর্ষসেরা শাখায় স্থান পেয়েছে বাংলাদেশ তরুণ কলাম লেখক ফোরাম, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখা।

এ বিষয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি জয়নুল হক বলেন, এটা আমাদের জন্য অনেক বড় প্রাপ্তি। এতগুলো শাখার ভিতরে আমাদের নাম এসেছে এটা আমাদের জন্য আনন্দের বিষয়। তবে এই অর্জন আমাদের সকল সদস্যদের জন্যই। আগামীতে তাদের লেখনিতে আরো এগিয়ে যাবে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সেই প্রত্যাশা করি।

এছাড়াও বর্ষসেরা লেখকের তালিকায় স্থান পেয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক ইমরান হুসাইন। অনুভূতি প্রকাশ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশ তরুণ কলাম লেখক ফোরামের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। আমি সত্যিই খুব খুশী যা বলে বোঝানো সম্ভব না। সকলের দোয়া ও ভালোবাসা নিয়ে এগিয়ে যেতে চাই। এছাড়া বর্ষসেরা লেখকের তালিকায় আছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সদস্য বিল্লাল হোসেন এবং ঢাকা কলেজ শাখার সভাপতি মুহাম্মদ সায়েম আহমেদ। এছাড়া বাংলাদেশ তরুণ কলাম লেখক ফোরামের তৃতীয় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে নিজ প্রবন্ধ পাঠ প্রতিযোগিতায় প্রথম হয়েছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সদস্য ফারিয়া ইয়াসমিন। 

অনুভূতি প্রকাশ করে তিনি বলেন, এটা আমার জন্য অনেক গর্বের বিষয়। আমার এই প্রাপ্তির মূলে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার অবদান অনেক। বিজয়ীদের নাম ঘোষণার পর ২০২১-‘২২ বর্ষের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করা হয়। এতে নতুন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন মারজুক রায়না ও আনারুল ইসলাম।

উল্লেখ্য, ‘সুপ্ত প্রতিভা বিকশিত হোক লেখনীর ধারায়’ স্লোগানে ২০১৮ সালের ২৩ জুলাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫ জন সদস্য নিয়ে যাত্রা শুরু করে ‘বাংলাদেশ তরুণ কলাম লেখক ফোরাম’। দেশের ১৭টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়াও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের লেখালেখিতে উদ্বুদ্ধ করতে কাজ করে যাচ্ছে সংগঠনটি।

 

ডব্লিউইউ