|

লকডাউনে সঞ্চয়ের আংশিক টাকা ফেরত দিল ব্র্যাক

Published: Sat, 17 Jul 2021 | Updated: Sat, 17 Jul 2021

মো. ইউসুফ আলী, আটোয়ারী, পঞ্চগড় প্রতিনিধি: কঠোর লকডাউনে সকল এনজিও অফিস বন্ধ থাকলেও সঞ্চয়ের টাকা ফেরত পেলেন ব্র্যাক এনজিও’র গ্রাহকরা। পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলা ও বোদা উপজেলার ৬টি ব্রাঞ্চের ১৯৫ জন গ্রাহক তাদের সঞ্চয় হতে প্রতি গ্রাহক ২০০০/- টাকা করে ঘরে বসেই বিকাশের মাধ্যমে ফেরত পেয়েছেন। 

মহামারি করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে সারাদেশে গত ১ জুলাই হতে কঠোর লকডাউন ঘোষণা দিয়েছিল সরকার। এর কারণে বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রা স্থবির হয়ে পড়লে গ্রাহকদের জমানো টাকা ফেরত দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় ব্র্যাকের ঊর্ধ্বতন কর্তপক্ষ। সংকটকালে সঞ্চয়ের টাকা ফেরত দেওয়ায় খুশি হয়ে ব্র্যাক এনজিও’র  প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন গ্রাহকগণ। 

আটোয়ারী উপজেলার সুখ্যাতি গ্রামের রশিদা বেগম ও বোধগাঁও গ্রামের হাসিনা বেগম এবং বোদা উপজেলার তাঁতিপাড়া গ্রামের সুফলা ও নয়াদীঘি গ্রামের নবিজা নামক ব্র্যাক গ্রাহকগণ জানান, লকডাউনের কারণে তাদের উপার্জন বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। সামনে কোরবানি ঈদের বাড়তি খরচ কীভাবে সামাল দিবেন এনিয়ে ছিলেন মহা দুশ্চিন্তায়। এই দুঃসময়ে নিজেদের জমানো টাকা থেকে কিছু টাকা ফেরত পেয়ে তারা আংশিক চিন্তামুক্ত হতে পেরেছেন। 

ব্র্যাকের আটোয়ারী উপজেলা  শাখার ব্যবস্থাপক (দাবি) সুনীল কুমার রায় বলেন, আমাদের কর্মীরা প্রতিনিয়ত মোবাইল ফোনে গ্রাহকদের খোঁজখবর নিচ্ছেন। সেই সাথে স্বাস্থ্য সচেতনতামূলক পরামর্শ প্রদান করছেন এবং অর্থনৈতিক সহযোগিতার প্রয়োজন রয়েছে কিনা সে বিষয়েও খোজ খবর রাখছেন। যারা সংকটে আছেন তাদেরকে সঞ্চয়ের টাকা বিকাশে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।  

বোদা উপজেলা ব্যবস্থাপক (দাবি) শাহ মো. আব্দুল আসাদ বলেন, গ্রাহকদের চাহিদার ভিত্তিতে কঠোর লকডাউনে ব্র্যাক অফিস বন্ধ থাকলেও পঞ্চগড় জেলার মাইক্রোফাইন্যান্স (দাবি) কর্মসূচির গ্রাহকদের ১৯৫ জনের মধ্যে প্রত্যেক গ্রাহককে দুই হাজার টাকা করে মোট ৩ লাখ ৯০ হাজার টাকা তাদের সঞ্চয় থেকে বিকাশের মাধ্যমে প্রদান করা হয়েছে।

 

ডব্লিউইউ