|

কলারোয়ায় অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার

Published: Mon, 28 Mar 2022 | Updated: Mon, 28 Mar 2022

তরিকুল ইসলাম, কলারোয়া, সাতক্ষীরা: সাতক্ষীরার কলারোয়ায় সঞ্চিতা হোসেন সেঁজুতি (১৪) নামে এক স্কুল ছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সোমবার (২৮ মার্চ) সকাল ৬টার দিকে উপজেলার জালালাবাদ ইউনিয়নের একটি ধান ক্ষেতের ড্রেনের ভিতর থেকে দুই হাত বাঁধা ও গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় ওই মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহত সেঁজুতি জালালাবাদ গ্রামের সোহরাব হোসেন পলাশের কন্যা ও কলারোয়া গার্লস পাইলট হাইস্কুলের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী। 

সেঁজুতির পিতা জানান, প্রতিবেশি আলতাফ হোসেন বিশ্বাসের ছেলে কলারোয়া সরকারি কলেজের এইচএসসি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবদুর রহমান (২০) এর সাথে তার মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। তিনি বিষয়টি মেনে না নেয়ায় প্রায় ছয় মাস পূর্বে তারা একবার পালিয়ে যায়। 

পরে সালিশ মিমাংসার মাধ্যমে তাদেরকে উভয় পরিবারে ফিরিয়ে নেয়া হলেও গোপনে তারা সম্পর্ক বজায় রাখে। 

২৭ মার্চ রাত ৮টার দিকে তিনি জানতে পারেন সেঁজুতিকে কোথাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ করে না পেয়ে আব্দুর রহমানের বাড়িতে গিয়ে তার পিতাকে অনুরোধ করেন মেয়েকে ফিরিয়ে দেয়ার জন্য। 

তিনিও জানান, তার ছেলে বাড়িতে নেই এবং তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি বন্ধ রয়েছে। পরে তিনি (মেয়ের পিতা) রাত ১২টার দিকে কলারোয়া থানায় একটি জিডি করেন। সকালে এক প্রতিবেশির কাছ থেকে মেয়ের লাশ পাওয়ার খবর জানতে পারেন। তিনি মেয়ের হত্যাকারীর দ্রুত গ্রেপ্তার ও সর্বোচ্চ শাস্তি দেয়ার দাবি জানান।

কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাসির উদ্দীন মৃধা জানান, খবর পেয়ে দ্রুত আমরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে মরদেহ উদ্ধার এবং প্রাথমিক সুরতহাল সম্পন্ন করি। তদন্ত শেষে বিস্তারিত বলা সম্ভব হবে।

এ বিষয়ে সাতক্ষীরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর আসাদুজ্জামান জানান, এ ঘটনায় কিছু গুরুত্বপূর্ণ আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। তদন্তের স্বার্থে এ মুহূর্তে কিছু জানানো সম্ভব হচ্ছে না। অপরাধী যেই হোক না কেন তাকে আইনের আওতায় এনে সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা হবে।


ডব্লিউইউ