অনাগত শিশুর লিঙ্গ জানানো যাবে না

Published: Thu, 28 Nov 2019 | Updated: Thu, 28 Nov 2019

অভিযাত্রা ডেস্ক : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সকল সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে আল্ট্রাসনোগ্রাফিতে অনাগত শিশুর লিঙ্গ বলে দেয়া নিষিদ্ধ করা হয়েছে। জেলার সিভিল সার্জন কার্যালয় এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে বুধবার (২৭ নভেম্বর) জানিয়েছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন ডা. শাহ আলম।

তিনি জানান, সম্প্রতি মা ও নবজাতকের স্বাস্থ্যসেবা বিষয়ক একটি সভায় বেশকিছু সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সভায় সর্বসম্মতিক্রমে আল্ট্রাসনোগ্রাফি করে শিশুর লিঙ্গ বলা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এখন থেকে কোনো হাসপাতালে আল্ট্রাসনোগ্রাফির মাধ্যমে শিশুর লিঙ্গ বলা যাবে না।

এজন্য সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকসহ জেলার সব হাসপাতালে চিঠি দেয়া হয়েছে বলেও জানান সিভিল সার্জন ডা. শাহ আলম।

উল্লেখ্য, গত ২৪ নভেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে সদ্যভূমিষ্ঠ তিন নবজাতককে নিয়ে ধোঁয়াশার তৈরি হয়। সেদিন দুপুরে হাসপাতালে সিজারিয়ান অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে সদর উপজেলার মোহনপুর এলাকার শারমীন আক্তার, সুহিলপুর এলাকার তামান্না আক্তার ও পৌর শহরের পাইকপাড়া এলাকার দ্বীপ্তি রাণী দাস ২টি ছেলে ও এক মেয়ে শিশুর জন্ম দেন।

শারমীন ও তামান্নার কোলে দুইটি ছেলে শিশু ও দ্বীপ্তির কোলে এক মেয়ে শিশুকে তুলে দেন চিকিৎসক। কিন্তু দ্বীপ্তি মেয়ে শিশুটি তার নয় জানিয়ে ছেলে সন্তান দাবি করায় বিপত্তি দেখা দেয়। তিনি তামান্নার কোলে তুলে দেয়া ছেলে শিশুকে নিজের সন্তান বলে দাবি করেন। এতে হাসপাতালে মহাহুলুস্থূল বেঁধে যায়।

এসএ/