এবার ৫০ শিল্পীর বিরুদ্ধে এফআইআর

অভিযাত্রা ডেস্ক : সৌমিত্র চ্যাটার্জি, অপর্ণা সেন, ভারতের ৫০জন বরেণ্য অভিনেতা ও পরিচালকের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদিকে খোলা চিঠি লিখে ‘দেশের মান নষ্ট করার’ অভিযোগে তাদের বিরুদ্ধে এফআইআর করা হয়েছে।

অপর্ণা সেন, সৌমিত্র চ্যাটার্জি, শ্যাম বেনেগাল ছাড়াও এ তালিকায় রয়েছেন- রামচন্দ্র গুহ, মণিরত্নম, শ্যাম বেনেগাল, গৌতম ঘোষ, অনুরাগ কাশ্যপ, অঞ্জন দত্তসহ অনেকে। 

গণপিটুনি, অসহিষ্ণুতা ইত্যাদি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে খোলা চিঠি পাঠানোর অভিযোগে এফআইআর দায়ের করেছেন আইনজীবী সুধীর কুমার ওঝা। ইন্ডিয়া টুডেসহ একাধিক সংবাদমাধ্যম এ খবর প্রকাশ করেছে। 

গত ২৭ জুলাই মুজাফফরপুরের সদর পুলিশ স্টেশনে এসব তারকাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন সুধীর কুমার ওঝা। গত ২০ আগস্ট মুজাফফরপুরের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তার আবেদন মঞ্জুর করেন। তার ভিত্তিতেই এফআইআর দায়ের হয়েছে। 

সুধীর কুমার ওঝা বলেন, ‘এই ৫০জন প্রধানমন্ত্রীকে খোলা চিঠি লিখে দেশের মান নষ্ট করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর নজরকাড়া পরিশ্রমকেও ছোট করতে চেয়েছেন। উল্টো তারা দেশদ্রোহী ও বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সমর্থন করেছেন’। 

দেশজুড়ে ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা বন্ধের দাবিতে এবং ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি তুলে সাম্প্রদায়িক উসকানিমূলক বার্তার প্রতিবাদে গত জুলাইয়ে এসব তারকা শিল্পীরা সরব হয়েছিলেন। ‘জয় শ্রীরাম’, ‘গণপিটুনি’সহ যাবতীয় অসহিষ্ণুতামূলক বিষয় উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দপ্তরে চিঠিও পাঠান তারা। এজন্য ক্ষমতাসীন দলের রোষানলেও পড়েছিলেন। শুধু তাই নয়, অপর্ণা সেন, কৌশিক সেনসহ একাধিক ব্যক্তিকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হয়েছিল। 

বিষয়টি নিয়ে সৌমিত্র চ্যাটার্জি বলেন, ‘আমার বক্তব্য চিঠিতে স্পষ্ট করে বলেছি। তাতে কার আপত্তি হলো, কে কী বলল, তা নিয়ে আমার বিন্দুমাত্র মাথাব্যথা নেই। তারা আগে নিজেদের ঘর সামলাক।’
 

/এসিএন