লালমাইয়ে পিছিয়ে পড়া শিক্ষার্থীদের পাশে একদল তরুণ

Published: Mon, 18 Nov 2019 | Updated: Mon, 18 Nov 2019

কুমিল্লা শহর থেকে ১৫ কিলোমিটার দূরে লালমাই পাহাড়ের ভিতরের একটি গ্রাম। প্রকৃতি যেন সেখানে দুহাত ভরে দিয়েছে। দেখে মনে হবে এক অপার সৌন্দর্য্যের লীলাভূমি। প্রতিবন্ধকতা যেখানে দারিদ্র প্রকৃতি যেন নিরুপায়, শিক্ষার প্রতিকূলতা থাকলেও, শিক্ষবিমুখ ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যাও নেহাত কম নয়।

স্বাক্ষরতা অথবা প্রাথমিক শিক্ষা অতঃপর ঝড়ে যায় হাজারো কোমল প্রান। কেননা তাদের স্বপ্নের অভাব, স্বপ্ন দেখানো লোকের অভাব। তাদেরকেই স্বপ্ন দেখাতে গত দুই বছর ধরে সেখানে গিয়েছিলো একদল স্বপ্নবাজ তরুণ যারা স্বপ্ন দেখতে এবং দেখাতে পছন্দ করে।

হ্যা আমি ভিবিডি-কুমিল্লার কথাই বলছিলাম, আমাদের মত সেই স্বপ্নবাজ তরুনরা গিয়েছিলো "চৌধুরীখলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়" এ কিছু নতুন সম্ভবনাকে বাচিয়ে তুলতে, স্বপ্ন দেখাতে, জীবন গড়তে সহায়ক ভূমিকা রাখতে গিয়েছিলো। এবার তৃতীয়বারের মতো আমরা গিয়েছিলাম তাদের হাতে  পরীক্ষা উপকরণ তুলে দেয়ার জন্য।

প্রতিবছর পিইসি পরীক্ষার মাধ্যমে লাখ লাখ শিক্ষার্থী প্রাথমিকের গণ্ডি পেরিয়ে মাধ্যমিকে আশার আগেই ঝরে পরে প্রায় এক তৃতীয়াংশ শিক্ষার্থী। কিন্তু আমরা যদি সমাজের সেসব পিছিয়ে পড়া স্কুল এবং শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়াই তারা এগিয়ে যাওয়ার সাহস পাবে। দেশের শিক্ষার মান বাড়বে এবং ভবিষ্যৎ প্রজন্ম সঠিক শিক্ষায় শিক্ষিত হবে।

লালমাইয়ে পিছিয়ে পড়া শিক্ষার্থীদের পাশে একদল তরুণ

তারা যেন মাঝ পথে ঝরে না যায় সেজন্যই ভিবিডি কুমিল্লা তৃতীয়বারের মতো লালমাই উপজেলার চৌধুরীখলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অর্পণ নামে এই ইভেন্টের আয়োজন করেছিল। এসময় পিইসির প্রস্তুতির অংশ হিসাবে তারা পরীক্ষার যাবতীয় সামগ্রী বিতরণ করে।

তারা কেবল মাত্র শিক্ষা উপকরণ বিতরণেই ভিবিডি কুমিল্লার ভলান্টিয়াররা সীমাবদ্ধ থাকেনি, একান্তে সময় কাটিয়েছে শিক্ষার্থীদের সাথে। কথা বলেছে তাদের সমস্যা সম্ভাবনা নিয়ে। কিভাবে পরীক্ষায় ভালো ফলাফল করে পড়ালেখার চূড়ায় আরোহণ করতে নিজেদের স্বপ্নগুলাকে যেন এখন থেকে ধীরে ধীরে বাস্তবায়ন করতে পারে সে পথ দেখিয়ে দিয়ে আসা।

এভাবে যদি আমরা নিজ নিজ জায়গা থেকে সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষদের পাশে দাঁড়াই এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ এবং অর্জিত হবে আমাদের ১৭টি এসডিজি গোল।

ইভেন্টে উপস্থিত ছিলেন ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ এর চট্টগ্রাম বিভাগের সাধারণ সম্পাদক নোমান আব্দুল্লাহ, কুমিল্লা জেলার প্রেসিডেন্ট হামীম আহমেদ,সাধারণ সম্পাদক মিলি,পাবলিক রিলেশন অফিসার আবরার আল-দাইয়ান, প্রজেক্ট অফিসার রাফি সব ভলান্টিয়ার ফর বাংলাদেশ কুমিল্লা জেলার প্রায় অর্ধশতাধিক ভলান্টিয়ার শিক্ষার্থী। 

মো. আ. রাফি

ব্রিটানিয়া বিশ্ববিদ্যালয়, কুমিল্লা

-এমজে