নকলায় এসিল্যান্ডের হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ বন্ধ, জরিমানা

Published: Mon, 05 Oct 2020 | Updated: Mon, 05 Oct 2020

মোশারফ হোসাইন, শেরপুর: শেরেপুরের নকলা উপজেলায় সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাউছার আহাম্মেদের হস্তক্ষেপে দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর বাল্যবিবাহ বন্ধ হয়েছে। এ ঘটনায় ঢাকার দক্ষিণখান এলাকা থেকে আসা বর মিজানুর রহমানকে ৫০ হাজার টাকা এবং কনের বাবা ও ঘটককে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। 

রোববার (০৪ অক্টোবর) রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নকলা পৌর সভার কুর্শাবাদাগৈড় এলাকায় পুলিশ বিভাগের বেশ কয়েকজন ও স্থানীয়দের সহায়তায় এ বাল্যবিবাহ বন্ধ করা হয়।

জানা গেছে, বাল্যবিবাহ বন্ধ করার পরে ঘটনাস্থলে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে আদালতের বিচারক সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাউছার আহাম্মেদ বরকে ৫০ হাজার টাকা এবং কনের বাবা ও বিয়ের ঘটককে ১০ হাজার টাকা করে ২০ হাজার টাকাসহ মোট ৭০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করেন। জরিমানা অনাদায়ে প্রত্যেককে ৭ দিনের জেল দেন। এছাড়া মেয়ে প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দিবেন না মর্মে মেয়ের অভিভাবকের কাছ থেকে মুচলেকা নেওয়া হয়।

এলাকার কোন ছেলে-মেয়েদের প্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ার আগে যেন বিবাহ না হয়, সে দিকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে মেয়ের পরিবারের সদস্য ও উপস্থিতিদের মৌখিক অঙ্গীকার করান ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক কাউছার আহাম্মেদ। তিনি বলেন, শেরপুরের নকলা উপজেলাকে প্রথম বাল্যবিবাহ মুক্ত উপজেলা হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। এ উপজেলায় বাল্যবিবাহতো দূরের কথা, বাল্যবিবাহ সম্পর্কিত কোন আয়োজনকেও বরদাস্ত করা হবেনা।

-এমজে