কিউইদের সহজে হারিয়ে সিরিজ শুরু টাইগার যুবাদের

অভিযাত্রা ডেস্ক : নিউজিল্যান্ডের যুবাদের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ৬ উইকেটে জিতেছে বাংলাদেশের যুবারা। এতে সিরিজটি শুরু হলো দুর্দান্তভাবে। বোলারদের চমৎকার বোলিংয়ের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি কিউই যুবারা। মাত্র ১৭৬ রানে থেমে যায় যায় তাদের ইনিংস। এরপর অধিনায়ক আকবর আলীর দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ৬ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে টাইগার যুবারা।

১৭৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি টাইগার যুবাদের। দলীয় এগারো রানেই তানজিদের সাথে ভুল বোঝাবুঝিতে রান আউট হন ওপেনার ইমন। তার ব্যাট থেকে আসে ১০ বলে মাত্র ২ রান। দ্বিতীয় উইকেট জুটিও বড়ো করতে পারেননি জয় ও তানজিদ। মারমুখী ব্যাট চালাতে গিয়ে ইনিংস বড় করতে পারেননি তানজিদ। ২৪ বলে ২৮ রান করেই ফিরতে হয় তাকে।

তৃতীয় উইকেটে জয় ও হৃদয়ের জুটি থেকে আসে ৪০ রান। জয় ২৮ রান করে ফিরে গেলে তার কিছুক্ষণ পরই ফিরে যান হৃদয়। ৪৭ বলে ২৬ রান করেন তৌহিদ হৃদয়। টপঅর্ডাররা ইনিংস বড় করতে না পারলেও ইনিংস বড় করে খেলা শেষ করে আসতে ভুল করেন নি দলনায়ক আকবর আলী। পঞ্চম উইকেট জুটিতে শাহাদাত ও আকবরের ব্যাট থেকে আসে ৮১ রান। যেখানে আকবর আলীর ব্যাট থেকে ১১ চারের সাহায্যে আসে ৬১ বলে অপরাজিত ৬৫ রান। আকবর ও শাহাদাতের জুটিতেই ৬৮ বল বাকি থাকতেই জয় পায় টাইগার যুবারা।

এর আগে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে কিউইরা। ইনিংসের প্রথম ওভারেই শরিফুলের বলে বোল্ড হয়ে ফিরে যান মারিউ। তারপর দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে প্রতিরোধ করার চেষ্টা করলেও সেটাকে দীর্ঘস্থায়ী হতে দেননি মৃত্যুঞ্জয়। ২৪ রানে আনসেল ফিরে গেলে ভাঙ্গে তাদের ৪৫ রানের জুটি। এক ওভারে ২ উইকেট পড়ে গেলে পড়ে গেলে আরও বিপদে পড়ে কিউইরা। শামীমের ওভারে ১৮ রান করে ফিরেন ওপেনার জোহরাব এবং ট্যাশকফ।

৫৩ রানে ৪ উইকেট হারানো দলটাকে সামলে নেয়ার চেষ্টা করেন লেলম্যান ও হোয়াইট। ২১ বলে ২৯ রান করে লেলম্যান ফিরে গেলে ভাঙ্গে ৪৭ রানের জুটি। লেলম্যানের বিদায়ের পরের ওভারেই তানজিদের বলে ফিরেন ৫০ বলে ৩০ রান করা হোয়াইট। শেষের দিকে পোম্যার ৪০ রান করলেও কিউইদের থামতে হয় মাত্র ১৭৬ রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর : 

নিউজিল্যান্ড অনুর্ধ্ব-১৯ দল : ৪৮ ওভারে ১৭৬/১০ (পোম্যার ৪০, হোয়াইট ৩০; মৃত্যুঞ্জয় ৩/২১, শরিফুল ৩/৪৪)

বাংলাদেশ অনুর্ধ্ব-১৯ দল :  ৩৮.৪ ওভারে ১৮০/৪ (আকবর ৬৫*, তানজিদ ২৮, জয় ২৮; ট্যাশকফ ২/৩৭, জ্যাকসন ১/৪০)

ফলাফল : বাংলাদেশ ৬ উইকেটে জয়ী

এসএ/